ঢাকা , শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম:
মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তমের নির্দেশে উয়ারুকে থামবে আইদি পরিবহন আমি ৯৬ সালের রফিকুল ইসলাম নই, আমি ২৪ সালের রফিকুল ইসলাম স্ত্রী নির্যাতনের প্রতিকার চেয়ে প্রবাসী খোরশেদ আলমের সাংবাদিক সম্মেলন শাহরাস্তিতে জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত শাহরাস্তি ক্রিকেট একাডেমীর আয়োজনে ট্যালেন্ট হান্টের পর্দা উঠলো আজ সবসময় সাধারণ মানুষের পাশে থাকবেন মৌসুমি সরকার শাহরাস্তিতে দেবরের কোদালের কোপে ভাবির মৃত্যু প্রিয় নেতাকে বিজয়ী করতে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে শরিফ খান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মৌসুমিকে বিজয়ী করতে চায় জনগণ আবদুল জলিল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হবেন বলে জানালেন সাধারণ জনতা

হাবিবুর রহমান ভূঁইয়ার মৃত্যুতে চাঁদপুর পুলিশ সুপারের শোক

চাঁদপুর জেলার অবসরপ্রাপ্ত কনস্টেবল মোঃ হাবিবুর রহমান ভূইয়া, পিতা-মৃত. মোহাম্মদ আলী ভূইয়া, সাং- মনোহরপুর, পোঃ-মালাপাড়া, থানা-ব্রাহ্মণপাড়া, জেলা-কুমিল্লা। বর্তমান ঠিকানা-শাহরাস্তি থানা, চাঁদপুর ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়ে রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতাল, ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় নিজ বাড়ীতে অবস্থান কালে ২২ই ডিসেম্বর ২০২৩ খ্রিঃ শুক্রবার রাত ৮.৫০ ঘটিকার সময় মৃত্যুবরণ করেন।

তার মৃত্যুতে চাঁদপুর পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

শুক্রবার এক বিজ্ঞপ্তিতে তিনি শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। মৃত্যুকালে হাবিবুর রহমান ভূঁইয়ার বয়স হয়েছিলো ৪৪ বৎসর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই কন্যাসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

শুক্রবার রাতে কনস্টেবল হাবিবুর রহমান ভূঁইয়ার মৃত্যুর খবর শুনে পুলিশ সুপার তার পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

পেশাদার এই পুলিশ সদস্য মৃত্যুর পূর্ব মুহুর্ত পর্যন্ত জনগণের সুরক্ষা ও দেশ মাতৃকার সেবায় নিয়োজিত ছিলেন। তিনি ১৯৭৯ সালে কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণপাড়া থানার মনোহরপুর গ্রামের সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি ১৯৯৮ সালের ৫ই মে পুলিশ কনস্টেবল হিসাবে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন। সুদীর্ঘ ২৫ বছর ০৬ মাস ২৮ দিন চাকরি জীবনে রাঙ্গামাটি, চট্টগ্রাম, ডিএমপি, ঢাকা, কক্সবাজার, ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ বাংলাদেশ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটে কর্মরত থেকে তাঁর উপর অর্পিত সকল সরকারী দায়িত্ব অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে পালন করেছেন। সর্বশেষ তিনি গত ২৮ অক্টোবর ২০১৬ ইং তারিখ হতে চাঁদপুর জেলায় কর্মরত ছিলেন।

চাঁদপুর জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম বলেন, প্রতিটি মৃত্যুই আমাদের হৃদয়ে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি করে। তবুও প্রিয় সহকর্মীকে হারানোর এই শোককে শক্তিতে পরিনত করে বাংলাদেশ পুলিশকে এগিয়ে যেতে হবে।

Facebook Comments Box
Tag :

মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তমের নির্দেশে উয়ারুকে থামবে আইদি পরিবহন

হাবিবুর রহমান ভূঁইয়ার মৃত্যুতে চাঁদপুর পুলিশ সুপারের শোক

Update Time : ০৮:৫২:৩১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০২৩

চাঁদপুর জেলার অবসরপ্রাপ্ত কনস্টেবল মোঃ হাবিবুর রহমান ভূইয়া, পিতা-মৃত. মোহাম্মদ আলী ভূইয়া, সাং- মনোহরপুর, পোঃ-মালাপাড়া, থানা-ব্রাহ্মণপাড়া, জেলা-কুমিল্লা। বর্তমান ঠিকানা-শাহরাস্তি থানা, চাঁদপুর ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়ে রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতাল, ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় নিজ বাড়ীতে অবস্থান কালে ২২ই ডিসেম্বর ২০২৩ খ্রিঃ শুক্রবার রাত ৮.৫০ ঘটিকার সময় মৃত্যুবরণ করেন।

তার মৃত্যুতে চাঁদপুর পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

শুক্রবার এক বিজ্ঞপ্তিতে তিনি শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। মৃত্যুকালে হাবিবুর রহমান ভূঁইয়ার বয়স হয়েছিলো ৪৪ বৎসর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই কন্যাসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

শুক্রবার রাতে কনস্টেবল হাবিবুর রহমান ভূঁইয়ার মৃত্যুর খবর শুনে পুলিশ সুপার তার পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

পেশাদার এই পুলিশ সদস্য মৃত্যুর পূর্ব মুহুর্ত পর্যন্ত জনগণের সুরক্ষা ও দেশ মাতৃকার সেবায় নিয়োজিত ছিলেন। তিনি ১৯৭৯ সালে কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণপাড়া থানার মনোহরপুর গ্রামের সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি ১৯৯৮ সালের ৫ই মে পুলিশ কনস্টেবল হিসাবে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন। সুদীর্ঘ ২৫ বছর ০৬ মাস ২৮ দিন চাকরি জীবনে রাঙ্গামাটি, চট্টগ্রাম, ডিএমপি, ঢাকা, কক্সবাজার, ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ বাংলাদেশ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটে কর্মরত থেকে তাঁর উপর অর্পিত সকল সরকারী দায়িত্ব অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে পালন করেছেন। সর্বশেষ তিনি গত ২৮ অক্টোবর ২০১৬ ইং তারিখ হতে চাঁদপুর জেলায় কর্মরত ছিলেন।

চাঁদপুর জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম বলেন, প্রতিটি মৃত্যুই আমাদের হৃদয়ে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি করে। তবুও প্রিয় সহকর্মীকে হারানোর এই শোককে শক্তিতে পরিনত করে বাংলাদেশ পুলিশকে এগিয়ে যেতে হবে।

Facebook Comments Box