ঢাকা , শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম:
মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তমের নির্দেশে উয়ারুকে থামবে আইদি পরিবহন আমি ৯৬ সালের রফিকুল ইসলাম নই, আমি ২৪ সালের রফিকুল ইসলাম স্ত্রী নির্যাতনের প্রতিকার চেয়ে প্রবাসী খোরশেদ আলমের সাংবাদিক সম্মেলন শাহরাস্তিতে জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত শাহরাস্তি ক্রিকেট একাডেমীর আয়োজনে ট্যালেন্ট হান্টের পর্দা উঠলো আজ সবসময় সাধারণ মানুষের পাশে থাকবেন মৌসুমি সরকার শাহরাস্তিতে দেবরের কোদালের কোপে ভাবির মৃত্যু প্রিয় নেতাকে বিজয়ী করতে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে শরিফ খান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মৌসুমিকে বিজয়ী করতে চায় জনগণ আবদুল জলিল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হবেন বলে জানালেন সাধারণ জনতা

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে দেখার ইচ্ছে পোষণ করে দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী আদিরা’র খোলা চিঠি 

সাইদ হোসেন অপু চৌধুরী, চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সরাসরি কথা বলতে চায় চাঁদপুর সদর উপজেলার বিষ্ণুদী আজিমিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থী সিদরাতুল মুনতাহা আদিরা। এ নিয়ে দুইবার প্রধানমন্ত্রী বরাবর আকুতি জানিয়েছে। এর আগে গত বছর প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে প্রথম চিঠি প্রেরণ করে এবং সেই চিঠি প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে পৌঁছে ছিলো জানা গেছে। ছোট্ট এই কোমলমতি শিশুর আকুতি কি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুরন করতে পারবেন। যদি ও তিনি দেশ পরিচালনা নিয়ে অনেক ব্যাস্ত সময় পার করছেন। দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সিদরাতুল মুনতাহা আদিরার পিতা অ্যাড. সেলিম মিয়া চাঁদপুর জজকোর্ট এর আইনজীবী। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ চাঁদপুর জেলা শাখার সাবেক সহ সভাপতি ও বর্তমানে মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য হিসেবে সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করছেন।

ছোট্ট এই কোমলমতি শিশুর খোলা চিঠিটি নিম্নে তুলে ধরা হলো।

” মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা,

আসসলামু আলাইকুম

আমি সিদরাতুল মুনতাহা আদিরা। আমি ২য় শ্রেণীর ছাত্রী, আমার রোল-২, বিষ্ণুদী আজিমিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় চাঁদপুর সদর, চাঁদপুর। আমার বাবা এডভোকেট সেলিম মিয়া আপনার দলের একজন সদস্য। আমাদের পরিবারের দাদা দাদী, কাকা, কাকী আমার নানা, নানা সকলে বা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাস করে। আমি আপনার সাথে দেখা করতে চাই। এর আগেও আপনার কাছে চিঠি লিখেছিলাম। আপনার সাথে দেখা করার সুযোগ পাইনি। আপনাকে সরাসরি দেখার আমার অনেক ইচ্ছা রয়েছে, আপনি তো আমার মতো ছোট শিশুদেরকে অনেক ভালোবাসেন। আমি টিভিতে দেখেছি আপনি ফিলিস্তিনের মানুষের পক্ষে কথা বলেছেন। আপনি পৃথিবীর অন্য দেশ গুলোর সাথে কথা বলে ফিলিস্তিনের মানুষদের বাঁচানোর চেষ্টা করুন। আপনি যেমন আমাদের সুন্দরভাবে বাঁচার অধিকার দিয়েছেন, ঠিক তেমনি ফিলিস্তিনের বাচ্চাদের কে বাঁচান। আপনার সুস্বাস্থ্য কামনা করি।”

ইতিঃ সিদরাতুল মুনতাহা আদিরা।

Facebook Comments Box
Tag :

মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তমের নির্দেশে উয়ারুকে থামবে আইদি পরিবহন

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে দেখার ইচ্ছে পোষণ করে দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী আদিরা’র খোলা চিঠি 

Update Time : ১১:৪৮:০৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০২৩
সাইদ হোসেন অপু চৌধুরী, চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সরাসরি কথা বলতে চায় চাঁদপুর সদর উপজেলার বিষ্ণুদী আজিমিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থী সিদরাতুল মুনতাহা আদিরা। এ নিয়ে দুইবার প্রধানমন্ত্রী বরাবর আকুতি জানিয়েছে। এর আগে গত বছর প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে প্রথম চিঠি প্রেরণ করে এবং সেই চিঠি প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে পৌঁছে ছিলো জানা গেছে। ছোট্ট এই কোমলমতি শিশুর আকুতি কি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুরন করতে পারবেন। যদি ও তিনি দেশ পরিচালনা নিয়ে অনেক ব্যাস্ত সময় পার করছেন। দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সিদরাতুল মুনতাহা আদিরার পিতা অ্যাড. সেলিম মিয়া চাঁদপুর জজকোর্ট এর আইনজীবী। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ চাঁদপুর জেলা শাখার সাবেক সহ সভাপতি ও বর্তমানে মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য হিসেবে সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করছেন।

ছোট্ট এই কোমলমতি শিশুর খোলা চিঠিটি নিম্নে তুলে ধরা হলো।

” মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা,

আসসলামু আলাইকুম

আমি সিদরাতুল মুনতাহা আদিরা। আমি ২য় শ্রেণীর ছাত্রী, আমার রোল-২, বিষ্ণুদী আজিমিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় চাঁদপুর সদর, চাঁদপুর। আমার বাবা এডভোকেট সেলিম মিয়া আপনার দলের একজন সদস্য। আমাদের পরিবারের দাদা দাদী, কাকা, কাকী আমার নানা, নানা সকলে বা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাস করে। আমি আপনার সাথে দেখা করতে চাই। এর আগেও আপনার কাছে চিঠি লিখেছিলাম। আপনার সাথে দেখা করার সুযোগ পাইনি। আপনাকে সরাসরি দেখার আমার অনেক ইচ্ছা রয়েছে, আপনি তো আমার মতো ছোট শিশুদেরকে অনেক ভালোবাসেন। আমি টিভিতে দেখেছি আপনি ফিলিস্তিনের মানুষের পক্ষে কথা বলেছেন। আপনি পৃথিবীর অন্য দেশ গুলোর সাথে কথা বলে ফিলিস্তিনের মানুষদের বাঁচানোর চেষ্টা করুন। আপনি যেমন আমাদের সুন্দরভাবে বাঁচার অধিকার দিয়েছেন, ঠিক তেমনি ফিলিস্তিনের বাচ্চাদের কে বাঁচান। আপনার সুস্বাস্থ্য কামনা করি।”

ইতিঃ সিদরাতুল মুনতাহা আদিরা।

Facebook Comments Box