ঢাকা , শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম:
শাহরাস্তিতে জাতীয় বীমা দিবস পালিত কেক কাটার মধ্য দিয়ে পাঠক প্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল “প্রিয় চাঁদপুর” এর ৮ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত শাহরাস্তির রায়শ্রী আল-আমিন হাফেজিয়া মাদ্রাসার বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল সম্পন্ন রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদকে ভূষিত হলেন ফরিদগঞ্জের শামছুন্নাহার এসএসসির প্রশ্ন ফাঁস: মনোহরগঞ্জে ২ শিক্ষক জেলে, প্রধান শিক্ষক পলাতক বদলে গেছে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স স্থানীয় সরকার দিবস উপলক্ষে শ্রীপুরে র‍্যালি ও আলোচনা সভা শাহরাস্তি রেল স্টেশন বাজার কমিটি নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে মো.সাইফুল ইসলাম সকলের দোয়াপ্রার্থী বিডি হিউম্যান অর্গানাইজেশন এর আইসিটি অলিম্পিয়াড বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান সম্পন্ন  শাহরাস্তিতে পিতা-মাতাকে ঘর থেকে বের করে দেয়ায় গ্রেফতার পুত্র

উম্মুক্ত করা করা হলো শাহরাস্তির স্বপ্নের ওয়াকওয়ে

এই মাটিকে সুন্দর ভাবে সাজিয়ে তোলা আমাদের পবিত্র নৈতিক দায়িত্ব

-মেজর ( অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম 

জনগণের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে শাহরাস্তি উপজেলার ডাকাতিয়া নদীর পাড়ে গড়ে উঠা ওয়াকওয়ে। গতকাল ১৪ অক্টোবর শনিবার বিকেলে সূচিপাড়া ব্রীজ প্রান্তে বনার্ঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে ওয়াকওয়ে উম্মুক্ত করেন নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, মহান মুক্তিযুদ্ধের ১নং সেক্টর কমান্ডার স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম।

আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, এ মাটির সাথে আমাদের আত্মার সম্পর্ক। এই মাটিকে সুন্দর ভাবে সাজিয়ে তোলা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। এই মাটির আকর্ষণে আমরা এই মাটিকে সুন্দর ভাবে সাজিয়ে তুলবো। এই মাটিতে আমার বাবা,মা ভাই বোনদের জন্ম এই মাটিকে ও দেশকে সাজিয়ে তোলা আমাদের ঈমানী দায়িত্ব। ২০১০ সাল থেকে আমি চেষ্টা করে যাচ্ছিলাম নদীর পাড় রক্ষা করা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে সাহসিকতা ও বলিষ্ঠ নেতৃত্ব দিয়ে যে উন্নয়ন করেছে তা স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। আমাদের কিছু লোক যারা হিংসায় মরে তারা বলে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের আসার কি দরকার আছে? তোমাদের প্রয়োজন হলে আসবে না? আগামী প্রজন্মের মাঝে তুলে ধরতে এই ওয়াকওয়ে। সারা বাংলাদেশে এটি যেন দর্শনীয় স্থান হয় সেই ভাবে গড়ে তোলা হবে।

এ রকম একটি ওয়াকওয়ে হাজীগঞ্জ উপজেলায় গড়ে তোলা হবে। তিনি বলেন, আমি পৃথিবীর যে কোন দেশেই যাই এই মাটি আমাকে টেনে নিয়ে আসে। জীবনের সর্বশক্তি দিয়ে এই মাটিকে গড়ে তুলবো।

তিনি আরও বলেন, যারা পরশ্রী কাতর যাদের ভিতর হিংসা কাজ করে, তারাই এই মাটির বিরুদ্ধে কথা বলবে। আমার কাছে তথ্য ছিল ঐ পরশ্রী কাতর লোক গুলো আজকের অনুষ্ঠানের বিরুদ্ধে কাজ করছে ভবিষ্যতে আমি তাদের নাম তুলে ধরবো। আপনাদের জানা দরকার এই লোক গুলো মুক্তিযোদ্ধের বিরুদ্ধে কাজ করছে এদের পরিবার রাজাকারদের পরিবার মূলত তারাই এই কাজ গুলো করছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোঃ মোস্তফা কামাল বলেন, আপনি কি উন্নয়ন দেখতে বিদেশে যাওয়ার দরকার আছে। সব উন্নয়ন এদেশেই আছে। বর্তমানে বাংলাদেশে ওয়াকওয়ে দু জায়গায় হচ্ছে এক হলো ঢাকার চার পাশে, আরেকটি হলো শাহরাস্তিতে। আমাদের সামনে স্মাট বাংলাদেশ গড়তে কাজ করছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিনি যা বলেন তাই করেন। তিনি বলেছেন কিন্তু করেন নাই এমন তথ্য থাকলে জানাইয়েন। ২০৪১ সালে বাংলাদেশ হবে স্মাট বাংলাদেশ আমরা তার কর্মী আমরা তা করবোই। এই ওয়াকওয়ে দেখে অনেক এমপি এ কাজ করার জন্য এগিয়ে আসবে।

বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান আরিফ আহমেদ মোস্তফার সভাপতিত্বে বিআইডব্লিউটিএর সংস্থাপন পরিচালক মোবারক হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হুমায়ুন রশিদ,উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নাসরিন জাহান চৌধুরী, শাহরাস্তি পৌর মেয়র হাজী আঃ লতিফ, হাজীগঞ্জ পৌর মেয়র আ স ম মাহবুব আলম লিপন, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি কাজী সাহাদাত, ইকবাল হোসেন, শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জেড এম আনোয়ার।

অনুষ্ঠানে শিক্ষক, সাংবাদিক ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের বিপুল উপস্থিতি ঘটে।

Facebook Comments Box
Tag :
About Author Information

RAFIU HASAN

শাহরাস্তিতে জাতীয় বীমা দিবস পালিত

উম্মুক্ত করা করা হলো শাহরাস্তির স্বপ্নের ওয়াকওয়ে

Update Time : ০৪:৩৬:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২৩

এই মাটিকে সুন্দর ভাবে সাজিয়ে তোলা আমাদের পবিত্র নৈতিক দায়িত্ব

-মেজর ( অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম 

জনগণের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে শাহরাস্তি উপজেলার ডাকাতিয়া নদীর পাড়ে গড়ে উঠা ওয়াকওয়ে। গতকাল ১৪ অক্টোবর শনিবার বিকেলে সূচিপাড়া ব্রীজ প্রান্তে বনার্ঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে ওয়াকওয়ে উম্মুক্ত করেন নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, মহান মুক্তিযুদ্ধের ১নং সেক্টর কমান্ডার স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম।

আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, এ মাটির সাথে আমাদের আত্মার সম্পর্ক। এই মাটিকে সুন্দর ভাবে সাজিয়ে তোলা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। এই মাটির আকর্ষণে আমরা এই মাটিকে সুন্দর ভাবে সাজিয়ে তুলবো। এই মাটিতে আমার বাবা,মা ভাই বোনদের জন্ম এই মাটিকে ও দেশকে সাজিয়ে তোলা আমাদের ঈমানী দায়িত্ব। ২০১০ সাল থেকে আমি চেষ্টা করে যাচ্ছিলাম নদীর পাড় রক্ষা করা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে সাহসিকতা ও বলিষ্ঠ নেতৃত্ব দিয়ে যে উন্নয়ন করেছে তা স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। আমাদের কিছু লোক যারা হিংসায় মরে তারা বলে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের আসার কি দরকার আছে? তোমাদের প্রয়োজন হলে আসবে না? আগামী প্রজন্মের মাঝে তুলে ধরতে এই ওয়াকওয়ে। সারা বাংলাদেশে এটি যেন দর্শনীয় স্থান হয় সেই ভাবে গড়ে তোলা হবে।

এ রকম একটি ওয়াকওয়ে হাজীগঞ্জ উপজেলায় গড়ে তোলা হবে। তিনি বলেন, আমি পৃথিবীর যে কোন দেশেই যাই এই মাটি আমাকে টেনে নিয়ে আসে। জীবনের সর্বশক্তি দিয়ে এই মাটিকে গড়ে তুলবো।

তিনি আরও বলেন, যারা পরশ্রী কাতর যাদের ভিতর হিংসা কাজ করে, তারাই এই মাটির বিরুদ্ধে কথা বলবে। আমার কাছে তথ্য ছিল ঐ পরশ্রী কাতর লোক গুলো আজকের অনুষ্ঠানের বিরুদ্ধে কাজ করছে ভবিষ্যতে আমি তাদের নাম তুলে ধরবো। আপনাদের জানা দরকার এই লোক গুলো মুক্তিযোদ্ধের বিরুদ্ধে কাজ করছে এদের পরিবার রাজাকারদের পরিবার মূলত তারাই এই কাজ গুলো করছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোঃ মোস্তফা কামাল বলেন, আপনি কি উন্নয়ন দেখতে বিদেশে যাওয়ার দরকার আছে। সব উন্নয়ন এদেশেই আছে। বর্তমানে বাংলাদেশে ওয়াকওয়ে দু জায়গায় হচ্ছে এক হলো ঢাকার চার পাশে, আরেকটি হলো শাহরাস্তিতে। আমাদের সামনে স্মাট বাংলাদেশ গড়তে কাজ করছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিনি যা বলেন তাই করেন। তিনি বলেছেন কিন্তু করেন নাই এমন তথ্য থাকলে জানাইয়েন। ২০৪১ সালে বাংলাদেশ হবে স্মাট বাংলাদেশ আমরা তার কর্মী আমরা তা করবোই। এই ওয়াকওয়ে দেখে অনেক এমপি এ কাজ করার জন্য এগিয়ে আসবে।

বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান আরিফ আহমেদ মোস্তফার সভাপতিত্বে বিআইডব্লিউটিএর সংস্থাপন পরিচালক মোবারক হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হুমায়ুন রশিদ,উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নাসরিন জাহান চৌধুরী, শাহরাস্তি পৌর মেয়র হাজী আঃ লতিফ, হাজীগঞ্জ পৌর মেয়র আ স ম মাহবুব আলম লিপন, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি কাজী সাহাদাত, ইকবাল হোসেন, শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জেড এম আনোয়ার।

অনুষ্ঠানে শিক্ষক, সাংবাদিক ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের বিপুল উপস্থিতি ঘটে।

Facebook Comments Box