ঢাকা , শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম:
মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তমের নির্দেশে উয়ারুকে থামবে আইদি পরিবহন আমি ৯৬ সালের রফিকুল ইসলাম নই, আমি ২৪ সালের রফিকুল ইসলাম স্ত্রী নির্যাতনের প্রতিকার চেয়ে প্রবাসী খোরশেদ আলমের সাংবাদিক সম্মেলন শাহরাস্তিতে জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত শাহরাস্তি ক্রিকেট একাডেমীর আয়োজনে ট্যালেন্ট হান্টের পর্দা উঠলো আজ সবসময় সাধারণ মানুষের পাশে থাকবেন মৌসুমি সরকার শাহরাস্তিতে দেবরের কোদালের কোপে ভাবির মৃত্যু প্রিয় নেতাকে বিজয়ী করতে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে শরিফ খান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মৌসুমিকে বিজয়ী করতে চায় জনগণ আবদুল জলিল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হবেন বলে জানালেন সাধারণ জনতা

কাতারে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালিত

  • জনপদ ডেস্ক
  • Update Time : ০৫:৪০:৪৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৬ অগাস্ট ২০২৩
  • ৫০২১১ Time View

ইউসুফ পাটোয়ারী লিংকন, কাতারঃ

কাতারের দোহাস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস অদ্য সকালে দূতাবাস প্রাঙ্গনে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৮তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করে। কাতারে বসবাসরত বীর মুক্তিযোদ্ধা, কমিউনিটির রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যবৃন্দ, ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার প্রতিনিধিবৃন্দসহ কমিউনিটির উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সদস্য জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

মান্যবর রাষ্ট্রদূত মোঃ নজরুল ইসলাম কর্তৃক জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করণের মধ্যে দিয়ে জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচীর সূচনা করা হয়। অতঃপর জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করে সম্মান জানানো হয়। পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ করার পর জাতির পিতা, বঙ্গমাতা, তাদের পরিবারের নিহত সকল সদস্য ও অন্যান্য শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবসহ তাদের পরিবারের শাহাদত বরণকারী সকল সদস্য ও মুক্তিযুদ্ধের সকল শহিদদের রূহের মাগফেরাত এবং দেশের শান্তি, মঙ্গল ও উন্নয়ন কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। এরপর জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে প্রেরিত মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী এবং মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। অনুষ্ঠানে শোকাবহ ১৫ আগস্ট এর উপর নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র “বাঙালির কালরাত” প্রদর্শিত হয়।

মান্যবর রাষ্ট্রদূত জনাব মোঃ নজরুল ইসলাম তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই জাতির পিতার স্মৃতির প্রতি বিন্ম্র শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন। এছাড়াও তিনি বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবসহ জাতির পিতার পরিবারের নিহত সদস্য ও ঐ রাতে নিহত অন্যান্য শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও দেশ গঠনে জাতির পিতার অবিস্মরণীয় ভুমিকা সম্পর্কে সংক্ষেপে আলোচনা করেন। জাতির পিতা শ্বাধীন বাংলাদেশ গঠনে যে ত্যাগ স্বীকার ও অবদান রেখেছেন তাঁর স্বপ্ন বাস্তবায়নের মাধ্যমেই প্রতিদান দেওয়া সম্ভব বলে রাষ্ট্রদূত উল্লেখ করেন। তিনি আরো বলেন যে, বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির পিতা কর্তৃক গৃহীত অসমাপ্ত প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশকে বিশ্বে রোল মডেল হিসেবে দাঁড় করাতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি শোককে শক্তিতে পরিণত করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের গৃহীত প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে সকলকে সহযোগিতা প্রদানের আহবান জানান।

Facebook Comments Box
Tag :

মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তমের নির্দেশে উয়ারুকে থামবে আইদি পরিবহন

কাতারে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালিত

Update Time : ০৫:৪০:৪৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৬ অগাস্ট ২০২৩

ইউসুফ পাটোয়ারী লিংকন, কাতারঃ

কাতারের দোহাস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস অদ্য সকালে দূতাবাস প্রাঙ্গনে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৮তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করে। কাতারে বসবাসরত বীর মুক্তিযোদ্ধা, কমিউনিটির রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যবৃন্দ, ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার প্রতিনিধিবৃন্দসহ কমিউনিটির উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সদস্য জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

মান্যবর রাষ্ট্রদূত মোঃ নজরুল ইসলাম কর্তৃক জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করণের মধ্যে দিয়ে জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচীর সূচনা করা হয়। অতঃপর জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করে সম্মান জানানো হয়। পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ করার পর জাতির পিতা, বঙ্গমাতা, তাদের পরিবারের নিহত সকল সদস্য ও অন্যান্য শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবসহ তাদের পরিবারের শাহাদত বরণকারী সকল সদস্য ও মুক্তিযুদ্ধের সকল শহিদদের রূহের মাগফেরাত এবং দেশের শান্তি, মঙ্গল ও উন্নয়ন কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। এরপর জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে প্রেরিত মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী এবং মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। অনুষ্ঠানে শোকাবহ ১৫ আগস্ট এর উপর নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র “বাঙালির কালরাত” প্রদর্শিত হয়।

মান্যবর রাষ্ট্রদূত জনাব মোঃ নজরুল ইসলাম তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই জাতির পিতার স্মৃতির প্রতি বিন্ম্র শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন। এছাড়াও তিনি বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবসহ জাতির পিতার পরিবারের নিহত সদস্য ও ঐ রাতে নিহত অন্যান্য শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও দেশ গঠনে জাতির পিতার অবিস্মরণীয় ভুমিকা সম্পর্কে সংক্ষেপে আলোচনা করেন। জাতির পিতা শ্বাধীন বাংলাদেশ গঠনে যে ত্যাগ স্বীকার ও অবদান রেখেছেন তাঁর স্বপ্ন বাস্তবায়নের মাধ্যমেই প্রতিদান দেওয়া সম্ভব বলে রাষ্ট্রদূত উল্লেখ করেন। তিনি আরো বলেন যে, বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির পিতা কর্তৃক গৃহীত অসমাপ্ত প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশকে বিশ্বে রোল মডেল হিসেবে দাঁড় করাতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি শোককে শক্তিতে পরিণত করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের গৃহীত প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে সকলকে সহযোগিতা প্রদানের আহবান জানান।

Facebook Comments Box