ঢাকা , রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

এস এস সি পরীক্ষার্থীদের সর্বশেষ করণীয়

সুপ্রিয় এসএসসি পরীক্ষার্থীবৃন্দ আশা করি ভালো আছো। দেখতে দেখতে তোমাদের SSC পরীক্ষা দ্বারপ্রান্তে। তোমার কি মনে আছে যখন তোমার বাবা মায়ের হাত ধরে স্কুলের প্রথম দিন স্কুলে গিয়েছিলে? সেদিন থেকেই তোমার বাবা মা কিন্তু তোমাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখা শুরু করেছে । আর এই ১০ বছরে তুমিও নিশ্চয় জীবনের লক্ষ্য ঠিক করেছ। সময় এসেছে একজন শিক্ষার্থী হিসেবে SSC পরীক্ষায় সফলতার সাথে উত্তীর্ণ হয়ে তোমার বাবা মায়ের স্বপ্ন ও তোমার লক্ষ্য পূরণের পথ সুগম করা।

তোমরা ৩০ এপ্রিল থেকে তোমার জীবনের সবচেয়ে বড় পাবলিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছ । ইতিমধ্যেই তোমরা পরীক্ষার রুটিন পেয়ে গেছো। তোমাদের হাতে আর ১২ দিন বাকি আছে। বাকি দিনগুলো কিভাবে কাজে লাগাবে তা নিয়ে তোমাদের জন্য আমার কয়েকটি পরার্মশ।

১. তোমাদের সর্বপ্রথম যে কাজটি করতে হবে তা হলো মোবাইল ,টেলিভিশন বা বিভিন্ন সোসাইল মিডিয়া অর্থাৎ facebbok ,twiitter থেকে দূরে থাকতে হবে। কোনভাবেই এসব ব্যবহার করা যাবে না। এতে করে অযথা অনেক সময় নষ্ট হয়ে যায়। মনে রাখতে তুমি আজকে যে দিনটি অতিক্রম করছ তা আর ফিরে পাওয়া সম্ভব নয়। সুতরাং মূল্যবান সময় নষ্ট করো না।

২. এই মুহূর্ত থেকে তোমরা নতুন কোনো টপিক পড়বে না। আগে যে অধ্যায়গুলো বা টপিকগুলো তোমরা পড়েছ সেগুলোই বারবার পড়ে ভালোভাবে আয়ত্ত করে নিবে। কারণ এই মুহূর্তে তুমি যদি নতুন কোন অধ্যায় বা নতুন কোন টপিক পড়ো তাহলে আগের পড়া টপিক বা অধ্যায়গুলো ভুলে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

৩। শেষ সময়ে রিভিশন দেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সিলেবাস ধরে ধরে প্রতিটি বিষয় রিভিশন দিবে।সারা বছর পড়েছ কিন্তু পরীক্ষার আগে রিভিশন দিতে না পারলে ভালো উত্তর করা সম্ভব হয় না। তোমাদের যেহেতু ১১/৮ টি সৃজনশীল প্রশ্ন থেকে ৪/৩ টি সৃজনশীল প্রশ্ন উত্তর করতে হবে সুতরাং সব অধ্যায় না পড়েও ভালো প্রস্তুতি নিতে পারো।

৪। তোমাদের সব বিষয়কে সমান গুরুত্ব দিতে হবে। অনেক শিক্ষার্থী শুধু গণিত,ইংরেজি, ফিজিক্স, রসায়ন, হায়ার ম্যাথ, জীববিজ্ঞান ,একাউনটিং, ভূগোল এসব বিষয় নিয়ে নিয়ে শিক্ষার্থীরা বেশি ব্যস্ত থাকে অন্যান্য বিষয়ে যেমন বাংলা, সমাজ, আইসিটি এসব বিষয়ে গুরুত্ব কম দিয়ে থাকে। এটা মোটেই ঠিক নয় সব বিষয়কে সমান ভাবে গুরুত্ব দেয়া উচিত । কারণ, তোমাদের পরীক্ষার রেজাল্ট কিন্তু সব বিষয়ের নম্বরের ভিত্তিতেই হবে।

৫। সৃজনশীল ও MCQ তে ভালো করার জন্য বোর্ড বইয়ের বিকল্প নেই। বিগত বোর্ড প্রশ্নগুলো পর্যালোচনা করলেই বুঝতে পারবে কোন অধ্যায়গুলো গুরুত্বপূর্ণ।আগে সেগুলো শেষ করবে। প্রয়োজনে সহায়ক বইয়ের সহায়তা নিতে পারো।

৬। নিজে নিজে অধ্যায়ভিত্তিক বা বিষয়ভিত্তিক মডেল টেস্ট দাও। এতে করে তোমার আত্ববিশ্বাস বাড়বে। দুর্বলতা থাকলেও চিহ্নিত করে প্রস্তুতি নিতে পারবে।

৭। পড়াশোনার পাশাপাশি খাওয়া-ঘুম, বিশ্রাম এগুলো সময়মতো করতে হবে। তোমাদের স্বাস্থ্যের প্রতি খেয়াল রাখবে। কোনভাবেই রাত জাগা যাবে না। রাত ১০টা বা ১১ টার মধ্যে ঘুমিয়ে পড়বে ,সকালে ভোরে উঠে আবার পড়াশুনা শুরু করবে। অতিরিক্ত কোনো মানসিক চাপ নিবে না।

৮। যেহেতু আমি ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক, তাই ইংরেজি নিয়ে কিছু কথা বলছি। তোমরা গত দুই বছর যাবৎ অনেক পড়েছো। ইংরেজির প্রস্তুতি নিয়েছ। ২ বছরের সমস্ত পড়াকে একত্রিত করে এখন Revision দিতে থাক। বিশেষ করে তোমরা এখন গত কয়েক বছরের বোর্ডের প্রশ্নগুলো ভালোভাবে পড়তে থাক। Writing Test গুলো ও বোর্ডের প্রশ্ন থেকে প্রস্তুতি নাও। উত্তরগুলো খাতার মধ্যে সুন্দর ভাবে লিখবে। খাতাকে সুন্দরভাবে সাজাবে। MCQ, Short Question এবং Fill in the gaps এর জন্য Seen passage গুলো ভালোভাবে পড়বে। কয়েকটি Passage select করে নাও। বিশেষ করে May Day, 26 March, 21 February, Mother Teresa, Pritilata, Zahir Raihan, Fish population ইত্যাদি কয়েকটি Passage ভালো করে পড় এবং কয়েকটি Unseen passage বিশেষ করে Sheikh Mujubur Rahman. kazi Nazrul Islam, Rabindranath Tagor, Humyun Ahmed, John Keats, P.B Shelley, Alfred Nobel এই জাতীয় কয়েকটি Passage practice করবে। Unseen passage থেকে Information Transfer এবং Summery লিখতে হবে। মনে রাখতে হবে Summery মূল Passage এর ১/৩ অংশ হবে। অর্থাৎ বেশি বড় না করে ৬/৭ Sentence এর মধ্যে লিখবে। Grammatical Items গুলোর জন্য বোর্ড প্রশ্ন এবং কিছু ভালো স্কুলের প্রশ্ন ভালোভাবে নিয়ম রপ্ত করে চর্চা করবে। Writing এর জন্য বিগত বোর্ডে যা এসেছে এগুলো ভালোভাবে অর্থ বুঝে পড়বে। Writing এর কোন Item common না আসলে প্রসঙ্গ ঠিক রেখে নিজে বানিয়ে লেখার চেষ্টা করবে। Paragraph এক para তে লিখতে হবে। CV writing এ CV যেন এক পৃষ্ঠার বেশি না হয়। Spelling error এবং Grammatical mistake এর দিকে খেয়াল রাখবে। সর্বদা সকল প্রশ্নের জবাব দিতে চেষ্টা করবে। সময়ের একটা সঠিক ভাগ করে নিবে। একটা উত্তর বেশি বড় লিখতে গিয়ে আরেকটি প্রশ্নের উত্তর যেন বাদ পড়ে না যায়।

সবশেষে বলবো নিজের প্রতি আত্ববিশ্বাস ও আল্লাহর উপর ভরসা রাখবে। নিশ্চয় আল্লাহ পরিশ্রমী ও ধৈর্য্যশীলদের সাথে আছেন। সকল পরীক্ষার্থীদের জন্য রইল শুভেচ্ছা এবং শুভকামনা।

মোঃ মাসুদুর রহমান
সহকারি শিক্ষক (ইংরেজি)
মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, চাঁদপুর।
সভাপতি, চাঁদপুর ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ ক্লাব।
যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ সরকারি মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি ( বাসমাশিস), কুমিল্লা অঞ্চল।

Facebook Comments Box
Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

RAFIU HASAN

এস এস সি পরীক্ষার্থীদের সর্বশেষ করণীয়

Update Time : ০২:৩৩:১৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৩

সুপ্রিয় এসএসসি পরীক্ষার্থীবৃন্দ আশা করি ভালো আছো। দেখতে দেখতে তোমাদের SSC পরীক্ষা দ্বারপ্রান্তে। তোমার কি মনে আছে যখন তোমার বাবা মায়ের হাত ধরে স্কুলের প্রথম দিন স্কুলে গিয়েছিলে? সেদিন থেকেই তোমার বাবা মা কিন্তু তোমাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখা শুরু করেছে । আর এই ১০ বছরে তুমিও নিশ্চয় জীবনের লক্ষ্য ঠিক করেছ। সময় এসেছে একজন শিক্ষার্থী হিসেবে SSC পরীক্ষায় সফলতার সাথে উত্তীর্ণ হয়ে তোমার বাবা মায়ের স্বপ্ন ও তোমার লক্ষ্য পূরণের পথ সুগম করা।

তোমরা ৩০ এপ্রিল থেকে তোমার জীবনের সবচেয়ে বড় পাবলিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছ । ইতিমধ্যেই তোমরা পরীক্ষার রুটিন পেয়ে গেছো। তোমাদের হাতে আর ১২ দিন বাকি আছে। বাকি দিনগুলো কিভাবে কাজে লাগাবে তা নিয়ে তোমাদের জন্য আমার কয়েকটি পরার্মশ।

১. তোমাদের সর্বপ্রথম যে কাজটি করতে হবে তা হলো মোবাইল ,টেলিভিশন বা বিভিন্ন সোসাইল মিডিয়া অর্থাৎ facebbok ,twiitter থেকে দূরে থাকতে হবে। কোনভাবেই এসব ব্যবহার করা যাবে না। এতে করে অযথা অনেক সময় নষ্ট হয়ে যায়। মনে রাখতে তুমি আজকে যে দিনটি অতিক্রম করছ তা আর ফিরে পাওয়া সম্ভব নয়। সুতরাং মূল্যবান সময় নষ্ট করো না।

২. এই মুহূর্ত থেকে তোমরা নতুন কোনো টপিক পড়বে না। আগে যে অধ্যায়গুলো বা টপিকগুলো তোমরা পড়েছ সেগুলোই বারবার পড়ে ভালোভাবে আয়ত্ত করে নিবে। কারণ এই মুহূর্তে তুমি যদি নতুন কোন অধ্যায় বা নতুন কোন টপিক পড়ো তাহলে আগের পড়া টপিক বা অধ্যায়গুলো ভুলে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

৩। শেষ সময়ে রিভিশন দেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সিলেবাস ধরে ধরে প্রতিটি বিষয় রিভিশন দিবে।সারা বছর পড়েছ কিন্তু পরীক্ষার আগে রিভিশন দিতে না পারলে ভালো উত্তর করা সম্ভব হয় না। তোমাদের যেহেতু ১১/৮ টি সৃজনশীল প্রশ্ন থেকে ৪/৩ টি সৃজনশীল প্রশ্ন উত্তর করতে হবে সুতরাং সব অধ্যায় না পড়েও ভালো প্রস্তুতি নিতে পারো।

৪। তোমাদের সব বিষয়কে সমান গুরুত্ব দিতে হবে। অনেক শিক্ষার্থী শুধু গণিত,ইংরেজি, ফিজিক্স, রসায়ন, হায়ার ম্যাথ, জীববিজ্ঞান ,একাউনটিং, ভূগোল এসব বিষয় নিয়ে নিয়ে শিক্ষার্থীরা বেশি ব্যস্ত থাকে অন্যান্য বিষয়ে যেমন বাংলা, সমাজ, আইসিটি এসব বিষয়ে গুরুত্ব কম দিয়ে থাকে। এটা মোটেই ঠিক নয় সব বিষয়কে সমান ভাবে গুরুত্ব দেয়া উচিত । কারণ, তোমাদের পরীক্ষার রেজাল্ট কিন্তু সব বিষয়ের নম্বরের ভিত্তিতেই হবে।

৫। সৃজনশীল ও MCQ তে ভালো করার জন্য বোর্ড বইয়ের বিকল্প নেই। বিগত বোর্ড প্রশ্নগুলো পর্যালোচনা করলেই বুঝতে পারবে কোন অধ্যায়গুলো গুরুত্বপূর্ণ।আগে সেগুলো শেষ করবে। প্রয়োজনে সহায়ক বইয়ের সহায়তা নিতে পারো।

৬। নিজে নিজে অধ্যায়ভিত্তিক বা বিষয়ভিত্তিক মডেল টেস্ট দাও। এতে করে তোমার আত্ববিশ্বাস বাড়বে। দুর্বলতা থাকলেও চিহ্নিত করে প্রস্তুতি নিতে পারবে।

৭। পড়াশোনার পাশাপাশি খাওয়া-ঘুম, বিশ্রাম এগুলো সময়মতো করতে হবে। তোমাদের স্বাস্থ্যের প্রতি খেয়াল রাখবে। কোনভাবেই রাত জাগা যাবে না। রাত ১০টা বা ১১ টার মধ্যে ঘুমিয়ে পড়বে ,সকালে ভোরে উঠে আবার পড়াশুনা শুরু করবে। অতিরিক্ত কোনো মানসিক চাপ নিবে না।

৮। যেহেতু আমি ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক, তাই ইংরেজি নিয়ে কিছু কথা বলছি। তোমরা গত দুই বছর যাবৎ অনেক পড়েছো। ইংরেজির প্রস্তুতি নিয়েছ। ২ বছরের সমস্ত পড়াকে একত্রিত করে এখন Revision দিতে থাক। বিশেষ করে তোমরা এখন গত কয়েক বছরের বোর্ডের প্রশ্নগুলো ভালোভাবে পড়তে থাক। Writing Test গুলো ও বোর্ডের প্রশ্ন থেকে প্রস্তুতি নাও। উত্তরগুলো খাতার মধ্যে সুন্দর ভাবে লিখবে। খাতাকে সুন্দরভাবে সাজাবে। MCQ, Short Question এবং Fill in the gaps এর জন্য Seen passage গুলো ভালোভাবে পড়বে। কয়েকটি Passage select করে নাও। বিশেষ করে May Day, 26 March, 21 February, Mother Teresa, Pritilata, Zahir Raihan, Fish population ইত্যাদি কয়েকটি Passage ভালো করে পড় এবং কয়েকটি Unseen passage বিশেষ করে Sheikh Mujubur Rahman. kazi Nazrul Islam, Rabindranath Tagor, Humyun Ahmed, John Keats, P.B Shelley, Alfred Nobel এই জাতীয় কয়েকটি Passage practice করবে। Unseen passage থেকে Information Transfer এবং Summery লিখতে হবে। মনে রাখতে হবে Summery মূল Passage এর ১/৩ অংশ হবে। অর্থাৎ বেশি বড় না করে ৬/৭ Sentence এর মধ্যে লিখবে। Grammatical Items গুলোর জন্য বোর্ড প্রশ্ন এবং কিছু ভালো স্কুলের প্রশ্ন ভালোভাবে নিয়ম রপ্ত করে চর্চা করবে। Writing এর জন্য বিগত বোর্ডে যা এসেছে এগুলো ভালোভাবে অর্থ বুঝে পড়বে। Writing এর কোন Item common না আসলে প্রসঙ্গ ঠিক রেখে নিজে বানিয়ে লেখার চেষ্টা করবে। Paragraph এক para তে লিখতে হবে। CV writing এ CV যেন এক পৃষ্ঠার বেশি না হয়। Spelling error এবং Grammatical mistake এর দিকে খেয়াল রাখবে। সর্বদা সকল প্রশ্নের জবাব দিতে চেষ্টা করবে। সময়ের একটা সঠিক ভাগ করে নিবে। একটা উত্তর বেশি বড় লিখতে গিয়ে আরেকটি প্রশ্নের উত্তর যেন বাদ পড়ে না যায়।

সবশেষে বলবো নিজের প্রতি আত্ববিশ্বাস ও আল্লাহর উপর ভরসা রাখবে। নিশ্চয় আল্লাহ পরিশ্রমী ও ধৈর্য্যশীলদের সাথে আছেন। সকল পরীক্ষার্থীদের জন্য রইল শুভেচ্ছা এবং শুভকামনা।

মোঃ মাসুদুর রহমান
সহকারি শিক্ষক (ইংরেজি)
মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, চাঁদপুর।
সভাপতি, চাঁদপুর ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ ক্লাব।
যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ সরকারি মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি ( বাসমাশিস), কুমিল্লা অঞ্চল।

Facebook Comments Box